Thursday, June 13, 2024

বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থদের ঘুরে দাড়াঁনোর লড়াই : প্রয়োজন সরকারি সহায়তা

আবুল কাশেম:

ঘুরে দাঁড়ানোর চেষ্টা চলছে বন্যায় ক্ষতিগ্রস্থ কক্সবাজারের পেকুয়ায়। এখানকার
অনেক এলাকায় এখনো পানি না নামায় দুর্ভোগ পোহাচ্ছে সাধারণ মানুষ।

কক্সবাজারের জেলা প্রশাসনের দেওয়া প্রাথমিক তথ্য মতে, সাম্প্রতিক ভারী বর্ষণ ও পাহাড়ী ঢলে চকরিয়া ও পেকুয়াসহ জেলার ৬০ টি ইউনিয়ন প্লাবিত হয়েছে। এতে ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে অন্তত সাড়ে ৫ লাখ মানুষ। আর পাহাড় ধস ও ঢলের পানিতে ভেসে গিয়ে ২২ জনের মৃত্যু হয়েছে।

বন্যা ও পাহাড়ি ঢলের পানিতে জেলার সাড়ে ১৫ হাজার হেক্টর জমির ফসল নষ্ট হয়েছে। এ ছাড়া ১৮ শত একর চিংড়ি ঘের এবং ১৭ শত একর মিঠাপানির মাছের ঘের বন্যার পানিতে তলিয়ে গেছে। সড়ক বিভাগের ৫৯ ও এলজিইডির ৮৯ কিলোমিটার রাস্তা, ৪৭ টি ব্রিজ কালভার্ট এর ক্ষতি হয়েছে।

সরেজমিনে ঘুরে দেখা য়ায় পেকুয়া সদর ইউনিয়নের ২নং ওয়র্ডের টেকপাড়া, মইয়্যদিয়া, সাগর পাড়া এখনো পানিবন্দি রয়েছে অনেক লোক। বাড়ি ঘরে বসবাসের অনুপযোগী হওয়ায় এসব এলাকার মানুষের দূর্ভোগের শেষ নেই। স্থানীয় টেকপাড়া এলাকার মোঃ নাছির উদ্দিনের বাড়ীটি বানের জলে ভেঙ্গে পড়ায় এখনো আশ্রয় কেন্দ্রে অবস্থান করছে। নাছির উদ্দিন জানান,সরকারি ভাবে কোন সাহার্য্য পেলে তিনি বাড়ীটি মেরামত করা সম্ভব। না হয় পরিবার নিয়ে খোলা আকাশের নিচে বসবাস করতে হবে।

ভেওলা মানিকচর ইউনিয়ের মাহমুদুল করিম জানান, বিগত ৬দিন যাবত রাস্তার উপর পলিথিনের ছাউনি দিয়ে পরিবার নিয়ে বসবাস করছি,ছোট ছোট বাচ্চাদের নিয়ে আতংকে আছি, সরকারি কোন সহায়তা পায়নি বলে তিনি জানান।

জেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে চকরিয়া পেকুয়ার জন্য ৬শ বান্ডিল ঢেউটিন এবং গৃহনির্মাণ মঞ্জুরি বাবদ ১৮ লক্ষ টাকা এবং গৃহনির্মাণ মঞ্জুরি বাবদ আরো ৬ লক্ষ টাকা এবং বরাদ্দ দেয়া হয়েছে।

পেকুয়া উপজেলা ভূমি সহকারী কমিশনার জাহিদুল ইসলাম জানিয়েছেন, উপজেলার প্লাবিত এলাকায় ত্রাণ বিতরণ অব্যাহত রয়েছে। যারা ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে তাদের তালিকা তৈরি চলছে, ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়ি তৈরিতে টিনসহ অন্যান্য সহযোগিতা করা হবে বলে জানান।

এদিকে রবিবার শিলখালী ইউনিয়নে ত্রাণ বিতরণ করেছেন স্থানীয় সাংসদ জাফর আলম।

তিনি সাংবাদিকদের জানান, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশে চকরিয়া পেকুয়ায় ত্রাণ বিতরণ করা হচ্ছে সে সাথে দুর্গোত এলাকাতে এক মাসের খাবার হিসেবে ভিজিএফ এর ব্যবস্থা করা হয়েছে,আগামী এক মাসের মধ্যেই ক্ষতিগ্রস্থ এলাকার মানুষদের স্বাভাবিক জীবনে ফিরাতে কাজ করছে সরকার।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ