Monday, February 26, 2024

ফিরে দেখা-২০২৩: পড়ুন কক্সবাজারে আলোচিত ঘটনা সমূহ

বার্তাকক্ষ:

বিদায়ী বছর ২০২৩। বছর জুড়েই সারাদেশে কক্সবাজারের নানান ঘটনা প্রবাহ ছিলো আলোচনায়। তেমন বেশ কয়েকটি ঘটনা নিয়ে আমাদের সালতামামি – ২০২৩ এর ১২ মাস।

প্রধানমন্ত্রীর কক্সবাজার সফর:
২০২৩ এ কক্সবাজারের অন্যতম একটি আলোচনার বিষয় ছিলো প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কক্সবাজার সফর। এ সফরে প্রধানমন্ত্রী সাড়ে ৩লাখ কোটি টাকার প্রকল্পের উদ্ভোধন করেন। এদিন শেখ হাসিনা মাতারবাড়ির জনসভায় অনেকটা প্রকাশ্যেই সংসদ সদস্য প্রার্থী হিসেবে আশেক উল্লাহকে পরিচয় করিয়ে দিয়েছিলেন। যা সারাদেশেই বেশ আলোচনা হয়। এছাড়াও প্রধানমন্ত্রীর এ সফর ঘিরে কক্সবাজার বাসীর ছিলো অন্যরকম উচ্ছাস। বিশেষ করে এ সফরেই তিনি উদ্বোধন করেন আইকনিক রেলষ্টেশন, মাতারবাড়িতে দেশের প্রথম গভীর সমুদ্রবন্দর চ্যানেল এবং ভিত্তি প্রস্তর করেন বন্দরের প্রথম টার্মিনাল নির্মান কাজের।

কক্সবাজারে এলো রেল:
দীর্ঘ ৯২ বছর আগে ট্রেন এসে থেমে গিয়েছিলো চট্টগ্রামের দোহাজারিতে। সেখান থেকে ১০০ কিলোমিটার রেলপথ পেরিয়ে ট্রেনের হুইসেল বেজেছে কক্সবাজারে। বৃটিশ শাসনামল এরপর পাকিস্তান সময়কাল পেরিয়ে স্বাধীন দেশে ৯ বার ক্ষমতার পালাবদল। এই দীর্ঘ অপেক্ষার পর সারাদেশের রেল যোগাযোগে যুক্ত হয় কক্সবাজার। সেইসাথে কক্সবাজারে উদ্বোধন হয় দক্ষিণ এশিয়ার অন্যতম নান্দনিক রেলস্টেশন। যার মধ্য দিয়ে এক অনন্য ইতিহাস রচিত হয় ২০২৩ সালের নভেম্বর এর ১২ তারিখ।

রেলের টিকিট কালোবাজারি:
১ ডিসেম্বর ঢাকা-কক্সবাজার রুটে বাণিজ্যিক রেল চলাচল শুরু হয়। কিন্তু মানুষের আবেগ আকাঙ্খা হঠাৎ করেই মৃয়মান হয়ে যায় টিকেট না পেয়ে। সমালোচনার ঝড় উঠে টিকেট কালোবাজারি নিয়ে। গেলো ১৫ ডিসেম্বর টিটিএনে টিকিট কালোবাজারির সন্ধ্যান শিরোনামে সংবাদ প্রচার হয়। যা নজরে আসে আদালতের। স্বপ্রণোদিত হয়ে আদালত ১৭ ডিসেম্বর মামলা করে। তদন্ত ভার পেয়ে কাজ শুরু করে র‍্যাব। এরপর হঠাৎ করেই উধাও হয়ে যায় টিকিট কালোবাজারি। স্টেশনের কাউন্টারেই পাওয়া যায় টিকেট।

কক্সবাজার পৌরসভা নির্বাচন:
বছরের অন্যতম একটি আলোচিত বিষয় ছিলো কক্সবাজার পৌরসভার নির্বাচন। নানান হিসেব নিকেশ মিলিয়ে আওয়ামীলীগের মনোনয়ন পাওয়া মাহবুবর রহমান মাবু নির্বাচিত হয় এতে। তার প্রতিদ্বন্ধী ছিলেন মাশেদুল হক রাশেদ। তীব্র প্রতিদ্বন্দ্বিতা পূর্ণ নির্বাচনে শেষ পর্যন্ত কক্সবাজারের পৌর পিতা হন মাবু। এখন দেখার বিষয় আগামীতে মেয়র মাবু কতোটা প্রত্যাশা পূরণ করেন সমুদ্র জনপদের মানুষের।

রোহিঙ্গা ক্যাম্প:
একেরপর এক হত্যা কাণ্ডের ঘটনায় সারাবছর আলোচনায় থাকে কক্সবাজারের রোহিঙ্গা আশ্রয় শিবির।এমনকি সর্বশেষ ৫ ডিসেম্বর কয়েক ঘন্টার ব্যবধানে তিন রোহিঙ্গা হত্যার ঘটনা ঘটে। ক্যাম্পের নিরাপত্তায় থাকা আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন- এপিবিএন বলছে, ক্যাম্পের বিবদমান সন্ত্রাসী গোষ্ঠী গুলোর মধ্যে আধিপত্য বিস্তারকে কেন্দ্র করেই এসব ঘটনা ঘটে। এছাড়াও বিভিন্ন দেশের গুরুত্বপূর্ণ প্রতিনিধিদের আগমন ঘটে আশ্রয় শিবিরে। প্রতিবারই রোহিঙ্গাদের দাবী থাকে একটি নিরাপদ প্রত্যাবাসনের। বাংলাদেশও চায় রোহিঙ্গারা ফিরে যাক নিজ ভূমিতে।

সাগরে ডুবে মৃত্যু:
কক্সবাজার সমুদ্র সৈকত। পর্যটকদের কাছে নীলজল দিগন্ত ছুঁয়ে সমুদ্র স্নান বেশ লোভনীয় ব্যাপার। কিন্তু সেই সমুদ্র স্নাননই কাল হয়েছে অনেকের। চলতি বছরের জানুয়ারি থেকে সমুদ্রে গোসল করতে নেমে ডুবে এবং ভেসে গিয়ে মৃত্যু হয়েছে ৮ জনের। এতে পর্যটক ৫ জন এবং স্থানীয় ৩ জন। অন্যদিকে লাইফগার্ড বলছে সমুদ্রে গোসল করতে নেমে দুর্ঘটনা ঠেকাতে তাদের তৎপরতা আছে, তবে এর সাথে প্রয়োজন সচেতনতাও।

এক বছরে তিন ঘূর্ণিঝড়:
বৈশ্বিক জলবায়ু পরিবর্তনের বিরূপ প্রভাব পড়তে শুরু করেছে। শেষ হতে যাওয়া এক বছরেই বাংলাদেশে আছড়ে পড়ে ৩ টি ঘূর্ণিঝড়। জলবায়ু বিশেষজ্ঞদের কারও কারও মতে যা অস্বাভাবিক। মো। মোখা, হামুন এবং মিধিলি। যার মধ্যে হামুন লণ্ডভণ্ড করে দেয় কক্সবাজার শহরকে। আবহাওয়াবিদেরা বলছেন, এক বছরে তিনটি ঘূর্ণিঝড় প্রকৃতির এলোমেলো আচরণের নজির। এর সঙ্গে বৈশ্বিক উষ্ণায়নের সম্পর্ক আছে বলেও মনে করেন তাঁরা। আর এর চরম ঝুঁকিতে রয়েছে সমুদ্র উপকূলবর্তী কক্সবাজার।

হোটেল মোটেলে হত্যাকাণ্ড:
কক্সবাজারের হোটেলে মোটেলে গুলোতে সারাবছরই ঘটেছিলো বেশ কয়েকটা হত্যার ঘটনা। প্রাথমিক অবস্থায় এসব মৃত্যু আত্মহত্যা বা অস্বাভাবিক বলা হলেও বেশিরভাগই পরিকল্পিত হত্যা বলে প্রমাণ পেয়েছে পুলিশ। সবচেয়ে বেশি আলোচিত ছিলো আওয়ামীলীগ নেতা সাইফুদ্দিন হত্যাকান্ড। পুলিশ দাবী করে, প্রাথমিক তদন্তে নৈতিক স্খলনের কারণে সাইফকে হত্যা করা হয়। কিন্তু পরিবার পুলিশের এমন বক্তব্য প্রত্যাখ্যান করে ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত দাবী করেন। ২০২৩ সালের ২১ আগস্ট কক্সবাজারের একটি হোটেল থেকে হাত বাঁধা অবস্থায় উদ্ধার করা হয় আওয়ামী লীগ নেতা সাইফুদ্দিনের মরদেহ।

আসছে নতুন বছর। নতুন সম্ভাবনা। হয়তো সামনে আসবে নতুন নতুন ঘটনা প্রবাহ। টিটিএনের সাথে থাকুন – বস্তুনিষ্ঠ সংবাদ সবার আগে জানতে, বিদায় ২০২৩।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page