Monday, March 4, 2024
spot_img

থার্টি ফাস্টে তারকা হোটেলে বুকিং আশানুরুপ, মাঝারি মানের হোটেলে আশাব্যঞ্জক নয়

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ইংরেজী বর্ষ বিদায় ও বরনে দেশের অন্যতম পর্যটন গন্তব্যে কক্সবাজার থাকে পর্যটকে ভরপুর। কিন্তু এ বছর কোনো অনুষ্ঠান না থাকায় এবং জাতীয় সংসদ নির্বাচনের কারনে আশানুরুপ পর্যটক আসছে না কক্সবাজারে। থার্টি ফাস্ট নাইটে নিরাপত্তাজনিত কারণে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ঢাকাসহ সারাদেশে উন্মুক্ত স্থানে কেনো প্রকার অনুষ্ঠান আয়োজন নিষিদ্ধ করেছে। ফলে কক্সবাজারের সমুদ্র সৈকতে থাকছেনা কোনো আয়োজন, আর সে কারনেই পর্যটক আগমনে ভাটা পড়েছে বলে মনে করছেন পর্যটন সংশ্লীষ্টরা। ট্যর অপারেটর এসোসিয়েশন অব কক্সবাজার, টুয়াক সাধারণ সম্পাদক ও আইল্যান্ডিয়া রিসোর্টের ব্যবস্থাপনা পরিচালক লায়ন নুরুল কবির পাশা জানান,৩১ ডিসেম্বর তেমন কোনো বুকিং নেই, কোনো আয়োজন না থাকায় এবার পর্যটক কক্সবাজার আসছে না। তবে তিনি আশা করছেন শেষ মুহুর্তে হয়ত কিছু সংখ্যক পর্যটক আসতে পারে। হোটেল মোটেল গোস্ট হাউজ মালিক সমিতির সাধারণ সম্পাদক সেলিম নেওয়াজ জানান, কিছু রুম বুকিং হলেও গতবছরের তুলনায় নগন্য। এ বছর আশানুরূপ পর্যটক কক্সবাজারে আসবে না বলে তিনি জানান।
অন্যদিকে তারকা মানের হোটেল গুলোতে আবার ভিন্নচিত্র। রুম বুকিং হয়েছে ৮০ থেকে ৯০ শতাংশ। কোনো কোনো হোটেলে শতভাগ রুম বুকিং হয়ে গেছে। সাগরতীরের তারকা হোটেল সীগালের পরিচালক শেখ ইমরুল ইসলাম সিদ্দিকী রুমি জানিয়েছেন, সীগালে শতভাগ বুকিং হয়েছে থার্টি ফাস্টে। অন্যান্য তারকা মানের হোটেল গুলোতেই বুকিং ভালো বলে জানা গেছে।
উন্মুক্ত স্থানে কোনো অনুষ্ঠান আয়োজন করতে বা পারলেও হোটেলের অভ্যন্তরে ছোটো পরিসরে অনুষ্ঠান আয়োজন করা যাবে, তবে তার জন্যে জেলা প্রশাসনের অনুমতি লাগবে বলে জানিয়েছেন অতিরিক্ত জেলা ম্যাজিস্ট্রেট ইয়ামিন হোসেন। প্রতিবছর ইংরেজী বর্ষ বিদায় ও বরনে কক্সবাজার আসে ৩ থেকে ৪ লক্ষ পর্যটক, তবে এবার তার অর্ধেকেরও কমে নেমে আসতে পারে বলে ধারনা করছেন পর্যটন সংশ্লীষ্টরা।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page