Thursday, February 29, 2024
spot_img

সেই সাদা জীপেই বিজয় এসেছিলো সাগরতীরে

নিজস্ব প্রতিবেদক :

১৯৭১ সালের ১২ ডিসেম্বর। সময়টা বিকেল সাড়ে তিনটার কিছু পর। সমুদ্র শহরে সাদা জিপ আসলো, কদিনের ঘুমহীন লাল চোখ নিয়ে ছাদখোলা জিপের সামনে দাড়িয়ে এক বীর আর জিপের সম্মুখে অমলিন লাল সবুজের পতাকা। সকাল থেকে সেই সাদা জিপটি ছুটে আসছিলো,রাস্তার দুপাশে ঘর থেকে বেরিয়ে আসে হাজার হাজার মানুষ, তাদের কারো চোখে জল, কারো বুকে উচ্ছাসের রং,কারো কন্ঠে জয়ের নিনাদ, সেই সাদা জিপটি যেনো বহন করে চলেছে দিগন্ত প্লাবিত এক নতুন ইতিহাস ।একসময় সাদা জিপটি থামে কক্সবাজারের তৎকালীন পাবলিক হলে মাঠে, তখন কানায় কানায় পুর্ন মাঠ, মুহুর্তেই জয় বাংলা জয় বাংলা ধ্বনিতে একাকার। অত:পর পাবলিক হল মাঠের গোল চত্বরে সেই সাদা জিপ থেকে নেমে আসা গ্রুপ কমান্ডার আব্দুস সোবহান আকাশের উঁচুতে উড়ালো সবুজের বুকে লাল খচিত পতাকা। আর ঘোষনা দিলেন ” আজ থেকে কক্সবাজার হানাদারমুক্ত”। সেদিনই কক্সবাজারের মানুষ বিজয়ের স্বাদ আস্বাদন করেছিলো। টিটিএনের কাছে সেদিনের কথা বলতে গিয়ে স্মৃতির ঝাঁপি খুলে এমনটাই বর্ণনা দিচ্ছিলেন সেই শত্রুমুক্ত দিবসের অন্যতম অংশগ্রহনকারি বীর মুক্তিযোদ্ধা মোজাফফর আহমেদ। তিনি জানান,১২ ডিসেম্বর সকাল ১০ টায় চারটি বাস ও একটি সাদা জিপে করে ৪০ জন বীরমুক্তিযোদ্ধা উখিয়ার রত্নাপালং হাইস্কুল ক্যাম্প থেকে গ্রুপ কমান্ডার আব্দুস সোবহানের নেতৃত্বে কক্সবাজারের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয় এবং বিকেল সাড়ে ৩ টার কিছু পর কক্সবাজার পৌঁছাবার পর পতাকা উত্তোলনের করে আব্দুস সোবহান কক্সবাজার কে শত্রুমুক্ত ঘোষনা দেন। এভাবেই রুদ্ধশ্বাস প্রতীক্ষা শেষে, হাজারো মানুষের কান্না,স্বজন ও আভ্রু হারানোর বেদনার সাগর পাড়ি দিয়ে বিজয়ের টেউ স্পর্শ করেছিলো সাগরতীরে।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page