Saturday, April 13, 2024

ঈদগাঁও বাজারে স্বর্ণের দোকানে চাঁদাবাজি ও লুটপাটের চেষ্টা

শাহিদ মোস্তফা শাহিদ, ঈদগাঁও

কক্সবাজারের ঈদগাঁও তরকারি বাজার সড়কে মুক্ত স্বর্ণ শিল্পালয় নামের এক প্রতিষ্ঠানে গিয়ে প্রকাশ্যে চাঁদাবাজি ও লুটপাটের চেষ্টা চালিয়েছে একদল দুষ্কৃতকারী। বাজারের ব্যবসায়ী ও পুলিশের তাৎক্ষণিক উপস্থিতিতে পালিয়ে যায় দুষ্কৃতকারীরা। ৬ ডিসেম্বর বিকেলে এ ঘটনাটি ঘটে ঈদগাঁও বাজারে। সংগঠিত ঘটনায় স্বর্ণ ব্যবসায়ীদের মধ্যে আতঙ্ক বিরাজ করছে।

মুক্ত স্বর্ণ শিল্পালয়ের মালিক ইসলামাবাদ ইউনিয়নের হরিপুর গ্রামের মৃত অর্ধেন্দু আচার্য্যের ছেলে উপজেলা পূজা উদযাপন কমিটির সভাপতি মৃণাল আচার্য্য জানান, একই ইউনিয়নের ৩নং ওয়ার্ড হিন্দু পাড়া এলাকার মৃত যতীন্দ্র মোহন দের ছেলে মৃদুল কান্তি দের নেতৃত্বে ৮/১০ জন চিহ্নিত চাঁদাবাজ চক্র দীর্ঘদিন ধরে তার কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে। গত ২৬ অক্টোবর বিকেলে তার নেতৃত্বে ওই চক্রটি দোকানে এসে প্রকাশ্যে ৫ লাখ টাকা চাঁদা দাবি করে। চাঁদা দিতে অস্বীকৃত জানালে লুটপাটের চেষ্টা চালায়। একই দিন মৃণাল আচার্য্য বাদী হয়ে ঈদগাঁও থানায় লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

দোকান মালিক মৃণাল আচার্য্য জানায়, থানায় লিখিত অভিযোগের বিষয়টি জানতে পেরে চাঁদাবাজ চক্রের সদস্যরা ৬ ডিসেম্বর বুধবার বিকেলে পূনরায় তার ব্যবসা প্রতিষ্ঠানে এসে চাঁদাদাবি করেন। বাধা দেওয়ার চেষ্টা করলে দোকানের কর্মচারীদের উপর হামলা করতে উদ্যত হয় চক্রের সদস্যরা। পরে থানা পুলিশকে খবর দিলে একদল পুলিশ এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।

মৃণাল আচার্য্য আরো বলেন, বাজারের অপর এক ব্যবসায়ী উত্তম রায় পুলকের যোগসাজশে ইসলামাবাদ হিন্দু পাড়া এলাকার মৃদুল কান্তি দে, অজিত দে, রূপন দে,পিলিপস দে,বিকাশ দে,আশীষ দে, নিউটন দে, মিঠুন দে সহ আরো কয়েকজন দুষ্কৃতকারী তার কাছ থেকে ৫ লক্ষ টাকা চাঁদা দাবি করে আসছে। চাঁদা না দিলে ব্যবসা করতে দিবে না বলেও হুমকি প্রদর্শন করেন বলে জানান মৃণাল। তিনি, সংগঠিত ঘটনায় জড়িতদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে ঘটনাস্থলে যাওয়া পুলিশ কর্মকর্তা ঈদগাঁও থানার সাব ইন্সপেক্টর (এসআই) আরকানুল ইসলাম বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনা হয়েছে। প্রত্যক্ষদর্শী এবং স্থানীয় ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে প্রাথমিক জিজ্ঞাসাবাদে যেটি জানা গেছে দোকানের মালিকানা ও স্বত্ব দাবি নিয়ে ঘটনার সূত্রপাত। বিষয়টি ভূমি সংক্রান্ত বিরোধ মনে হওয়ায় বিজ্ঞ আদালতে যাওয়ার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে।

অভিযুক্তদের সাথে বিভিন্ন মাধ্যমে যোগাযোগের চেষ্টা করেও পাওয়া যায়নি। পরবর্তীতে পাওয়া গেলে গুরুত্ব সহকারে ছাপানো হবে।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page