Sunday, February 25, 2024

নাশকতা করে নির্বাচন বন্ধ করা যাবে না: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

টিটিএন ডেস্ক:

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান বলেছেন, নির্বাচনের আমেজ ও উৎসব শুরু হয়ে গেছে। নাশকতা বা সন্ত্রাসের কারণে নির্বাচন বন্ধ থাকবে না, সঠিক সময়েই অনুষ্ঠিত হবে৷

মঙ্গলবার (৫ ডিসেম্বর) বিকেলে সচিবালয়ে বড়দিন ও থার্টি-ফাস্ট নাইট উদযাপন উপলক্ষে আইনশৃঙ্খলা সংক্রান্ত সভা শেষে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, নির্বাচন যথা সময়ে হবে। নির্বাচন কমিশন নির্বাচন ঘোষণা করেছেন।

ইতোমধ্যে নিবন্ধিত ২৯টি দল নির্বাচনে অংশগ্রহণ করছে। নির্বাচনের আমেজ, একটা উৎসব শুরু হয়ে গেছে।
কাজেই এখানে কেউ নাশকতা করবে, এটা কেউ চায় না।
বিএনপির সমালোচনা করে আসাদুজ্জামান খান বলেন, যে দলটির নাশকতার কথা বলছেন, এটা তাদের প্র্যাকটিস, তারা সুনিশ্চিত নির্বাচনে পরাজয় জেনেই ভিন্ন পন্থায় নির্বাচনকে প্রতিহত করার জন্য অগণতান্ত্রিক উপায় শুরু করেছে।

তিনি বলেন, নির্বাচনের বাইরে আর কোনো কিছু নেই। যার মাধ্যমে তারা (বিএনপি) ক্ষমতা বদলাতে পারে। ক্ষমতায় আসতে হলে তাদের নির্বাচনে আসবে হবে। এটাই হলো সহজ পন্থা।

২০১৮ সালের অগ্নিসন্ত্রাসের সঙ্গে বর্তমান রাজনৈতিক চলমান অবরোধ প্রসঙ্গ টেনে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, তারা (বিএনপি) ২০১৪-তে সেই নাশকতা, অগ্নিসন্ত্রাস টানা ৯০ দিন করেছে। আগুনে পুড়িয়ে মানুষ মেরেছে। এবারও তারা সেটাই শুরু করেছে। ২৮ অক্টোবর তাদের নিষ্ঠুরতা বর্বরতা আপনারা দেখেছেন, পুলিশকে হত্যা করেছে, আনসারকে হত্যা করেছে, প্রধান বিচারপতির বাসায় গিয়ে হামলা করেছে, হাসপাতালে হামলা করেছে, অ্যাম্বুলেন্স পুড়িয়েছে। আমরা রাজনীতিবিদরা মনে করেছিলাম, নেতারা দুঃখ প্রকাশ করবেন। তা না করে তারা (বিএনপি নেতারা) পরদিন আবার হরতাল ডাকলেন।

নাশকতার কারণে নির্বাচন বন্ধ থাকবে না জানিয়ে আসাদুজ্জামান খান বলেন, চলমান রাজনৈতিক সহিংসতার সঙ্গে সাধারণ মানুষের সম্পৃক্ততা নেই। বর্বরতা নিষ্ঠুরতা থেকে সাধারণ মানুষ মুক্তি চায়। সেজন্য নিরাপত্তা বাহিনী যথাযথ কাজটি করছে। এই নাশকতার কারণে বা সন্ত্রাসের কারণে নির্বাচন বন্ধ থাকবে না। নির্বাচন সঠিক সময়ে অনুষ্ঠিত হবে।

তিনি বলেন, আমাদের নিরাপত্তা বাহিনী অত্যন্ত চৌকস, তারা অত্যন্ত প্রফেশনাল এবং অত্যন্ত দক্ষ। তারা দেশকে ভালোবাসে, তারা তাদের অর্পিত দায়িত্ব যথাযথভাবে পালন করবে এবং এদেশের নাগরিকরাও তাদের সহযোগিতা করবে।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page