Friday, April 12, 2024

চকরিয়ায় আসন্ন নির্বাচনকে ঘিরে সহিংসতা : ২ মামলায় ৫১ জন আসামী

সাইফুল ইসলাম সাইফ,চকরিয়া :

চকরিয়ার সাহারবিলে আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচনকে কেন্দ্র করে গত ২৯ নভেম্বর ঘটে যাওয়া উভয় পক্ষের হামলা,মারধর পরবর্তী ব্যাপক ভাঙচুরের ঘটনায় থানায় দুটি মামলা দায়ের করা হয়েছে।

শনিবার (২ ডিসেম্বর)চকরিয়ায় থানায় দুই পক্ষের দুটি মামলায় মোট -৫১ জনকে আসামী করে এ মামলা রুজু হয়।সাহারবিল এলাকা সূত্রে জানাগেছে- স্থানীয় চেয়ারম্যান নবী হোসাইন বর্তমান এমপি ও স্বতন্ত্র প্রার্থী জাফর আলমের সমর্থক।ঘটনার দিন
চিরিংগা নৌকার প্রার্থী সালাহ উদ্দিন আহমদের জনসভায় গাড়িযোগে যাওয়ার সময় সাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নবী হোসাইন ও তার পিতা-মাতা নিয়ে গালি-গালাজ করে এসব মানুষ।এবং খারাপ স্লোগান দেয়।এর জেরে ওইদিন রামপুর স্টেশনে দুই পক্ষের হামলা মারধর ও ভাংচুরের
ঘটনা ঘটে।এতে আহত হয় এমইউপি সদস্য,আওয়ামী লীগনেতা,ও সাধারণ মানুষ।

থানায় দায়েরকৃত তারমধ্যে একটি মামলার বাদী ঢেমুশিয়া ইউপির মোহাম্মদ আইয়ুব এঁর দায়েরকৃত মামলায় আসামী করা হয়েছে,চকরিয়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সাবেক সহ-সভাপতি সরওয়ার আলম,মাহামুহুরী সাংগঠনিক থানা আওয়ামী লীগের সাবেক সাধারণ সম্পাদক মহসিন বাবুল,সাহারবিল ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ও এমইউপি সদস্য (আঘাতপ্রাপ্ত) এনামুল হক সহ ৩০ জন।
পৃথক আরেকটি মামলার বাদী ইউপির মাইজঘোনা এলাকার মুজিবুর রহমানের রুজুকৃত মামলায় আসামীরা হলেন,সাহারবিল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান নবী হোছাইন,মাতামুহুরি সাংগঠনিক থানা শ্রমিক লীগের যুগ্ন আহবায়ক তানবিন ইসলাম সায়মন,কোরালখালী এলাকার বাদল মিয়া, ইউনিয়ন ছাত্রলীগের সাধারণ সম্পাদক আশরাফুল ইসলাম বাপ্পি সহ ২১ জন।

চকরিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মোহাম্মদ আলী জানান, নির্বাচনকে ঘিরে গত ২৯ নভেম্বরের ঘটনায় দুইপক্ষের লিখিত অভিযোগ পাওয়ার পর একাধিকবার তদন্ত পূর্বক দুইটি মামলা রুজু হয়েছে। এসব আসামীদের গ্রেপ্তারের পুলিশের অভিযান অব্যাহত আছে।আমরা একটি সুষ্ঠু,নিরপেক্ষ সহিংসতা মুক্ত নির্বাচন উপহার দিতে চাই।সেক্ষেত্রে সকলের সহযোগীতা চায়।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page