Sunday, February 25, 2024

নারী নির্যাতন মামলার আসামী নারী ইউপি সদস্য ও তার ভাই

নোমান অরুপ :

নারী নির্যাতন মামলার আসামী হলেন টেকনাফ সাবরাং ইউপি’র ৭,৮,৯ নং ওয়ার্ডের মহিলা ইউপি সদস্য ফারিহা ইয়াছমিন। ১৯ অক্টোবর কক্সবাজার নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইবুনাল-৩ আদালতে মামলাটি দায়ের করেন শাহপরীর দ্বীপ ৮নং ওয়ার্ডের মৃত নুর হোসেনের মেয়ে জেসমিন আক্তার।

মামলা সুত্রে জানা যায়, মহিলা ইউপি সদস্য ফারিহা ইয়াছমিনের ভাই মামলার প্রধান আসামী মাহমুদুর রহমান বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে গত ৬ অক্টোবর রাত ১১ টার দিকে জেসমিন আক্তারকে ধর্ষনের চেষ্টা করে। এসময় শোর চিৎকার করলে পরিবারের অন্যান্য সদস্যরা জাগ্রত হয়ে কক্ষে গিয়ে দেখতে পায় মাহমুদুর রহমানকে। একই সময়ে আশেপাশের লোকজন জড়ো হয়, এবং তাদের সম্মুখে সে পূর্ববর্তী সম্পর্ক ও ধর্ষণ চেষ্টার বিষয়টি স্বীকার করেন।

পরবর্তীতে তার বোন স্থানীয় ইউপি সদস্য ফারিহা ইয়াছমিন, বেবী আক্তার, শাপলা আক্তার ও হেলাল, আবু তাহের’সহ  আরো ৫-৬ জনের একটি দল এসে ধারালো অস্ত্র দিয়ে জেসমিন আক্তারকে এলোপাতাড়ি আঘাত করে মাটিতে ফেলে দেয় এবং মামলার ২নং আসামী স্থানীয় মহিলা ইউপি সদস্য ফারিহা ইয়াছমিন উড়না পেঁচিয়ে গলা টিপে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করে। তার ভাই মামলার প্রধান আসামী মাহমুদুর রহমানকে ঘটনাস্থল থেকে ছিনিয়ে নিয়ে যায়।

অভিযুক্ত মহিলা ইউপি সদস্য ফারিহা ইয়াছমিনের সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করে ঘটনার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি ব্যস্ততা দেখিয়ে মুঠোফোন কেটে দেয়। এরপর একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলে তিনি ফোন রিসিভ না করায় বক্তব্য নেওয়া সম্ভব হয়নি।

এ বিষয়ে মামলা’র তদন্ত কর্মকর্তা শাহপরীর দ্বীপ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ (এসআই) তারেক মাহমুদ জানান, সাক্ষ্য গ্রহণ ও মামলার তদন্ত চলমান রয়েছে, মেডিকেল টেস্ট হাতে পেলে আদালতে তদন্ত রিপোর্ট দাখিল করতে পারব। দীর্ঘদিন হওয়ার পরও তদন্ত রিপোর্ট দাখিল না করার বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, মামলার বাদী কক্সবাজারে চিকিৎসা নিয়েছে তাই রিপোর্ট পেতে দেরী হচ্ছে। সুষ্ঠু তদন্তপূর্বক মামলার রিপোর্ট আদালতে দাখিল করা হবে।

টেকনাফ মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মুহাম্মদ ওসমান গণি জানান, আদালতে যেহেতু মামলা হয়েছে বিষয়টি উক্ত ফাঁড়ির ইনচার্জের সাথে কথা বলে জানাচ্ছি।

মামলাটির তদন্তপূর্বক দ্রুত আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণের দাবি জানিয়েছে স্থানীয়রা।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page