Monday, February 26, 2024

ঈদগাঁও সমীকরণ : অন্তঃকোন্দলে আ.লীগ, উধাও বিএনপি, গোপনে মাঠ সাজাচ্ছে জামাত, অস্তিত্ব নেই জাপা’র 

শাহিদ মোস্তফা শাহিদ :

আসন্ন দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে অন্তঃকোন্দলে জড়িয়ে পড়ছে ক্ষমতাসীন দল আওয়ামী লীগ ঈদগাঁও উপজেলা শাখার নেতাকর্মীরা। অপরদিকে নির্দলীয় সরকারের অধিনে জাতীয় নির্বাচনের এক দফা দাবি নিয়ে ৫ম বারের মতো হরতাল -অবরোধের ডাক দিয়ে রাজপথ থেকে উধাও হয়ে পড়ছে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি ঈদগাঁও উপজেলা শাখার নেতাকর্মীরা। অন্যদিকে বিএনপির শরীক দল হিসেবে পরিচিত জামাতে ইসলামি গোপনে মাঠ সাজাচ্ছে বলে দলীয় সূত্রে জানা গেছে।

তবে অস্তিত্ব নেই জাতীয় পার্টি (এরশাদ) জাপা, বাসদ, ইসলামি আন্দোলনসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের। নিষ্ক্রিয় সংগঠন গুলোর কোনো নেতাকর্মীও দেখা যায় না রাজপথে।সূত্র বলছে, আগামী দ্বাদশ  জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে গতকাল তফসিল ঘোষণা করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি) এই তফসিলকে যুগান্তকারী তফসিল জানিয়ে ঈদগাঁও উপজেলায় তাৎক্ষণিক আনন্দ মিছিল করে উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ইমরুল হাসান রাশেদ চেয়ারম্যান, একই ভাবে পরদিন বিকেলে আরো একটি আনন্দ মিছিল বের করেন উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মোঃ আবু তালেব। দু’টি মিছিলে ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীসহ অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীরা অংশ নেন।

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে কঠিন ও চ্যালেঞ্জ দাবি করে তৃণমূল আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা বলেন ; দলের এই ক্রান্তিলগ্নে সভাপতি /সাধারণ সম্পাদক দুই মেরুতে অবস্থান নেওয়ায় দলের জন্য বিরাট ক্ষতি হচ্ছে।তারা বলেন, ঈদগাঁও উপজেলা আওয়ামী লীগ এতোদিন গোপনে দলীয় কোন্দল চললেও তফসিল ঘোষণার পরপরই প্রকাশ্যে রূপ নেয় গ্রুপিং। জাতীয় নির্বাচনের আগে অন্তঃকোন্দল ছেড়ে এক কাতারে এসে পূনরায় সরকার গঠনের জন্য কাজ না করলে শেখ হাসিনার মনোনীত কক্সবাজার সদর,রামু, ঈদগাঁও আসনের  প্রার্থীকে জয়ী করা কঠিন হয়ে পড়বে। এ বিষয়ে জেলা এবং কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগের হস্তক্ষেপ কামনা করেন তৃণমূল পর্যায়ের নেতাকর্মীরা।

এদিকে এক দফা দাবি আদায়ের লক্ষে বিএনপির ঘোষিত হরতাল, অবরোধ, প্রহসনের তফসিল জানিয়ে ঈদগাঁও  উপজেলা বিএনপির নেতাকর্মীরা সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে বয়কট “তফসিল” বলে প্রচার করে আসলেও  দীর্ঘদিন ধরে রাজপথ থেকে উধাও হয়ে পড়ছে। হরতাল অবরোধ ঘোষণার পরপরই নাশকতার অভিযোগে ১৫ দলীয় নেতাকর্মীর বিরুদ্ধে মামলা দায়ের করেন থানা পুলিশ। ঐ ঘটনায় সন্দেহভাজন এবং জড়িত দু’জনকে আটক করতে পারলেও এজাহার ভুক্ত অপরাপর  আসামীরা প্রকাশ্যে চলাফেরা করলেও পুলিশ তাদের আটক করছে না বলে অভিযোগ করেন আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা।

 বিএনপি নেতাকর্মীরা জানান, উপজেলা বিএনপির সভাপতি ইসলামপুরের চেয়ারম্যান আবুল কালাম সৌদি আরবে রাষ্ট্রদ্রোহী মামলায় আটক হয়ে সেদেশের কারাগারে রয়েছে। বিএনপির পূর্ণাঙ্গ কমিটি না হওয়ায় সাধারণ সম্পাদক আলমগীর তাজ জনি একাই দলকে চাঙা করে রাখছে। আলমগীর তাজ জনির নেতৃত্বে ৫ ইউনিয়নের সভাপতি সাধারণ সম্পাদক ও অঙ্গ সহযোগী সংগঠনের নেতাকর্মীদের সঙ্গে সমন্বয় থাকলেও ভিতরে ভিতরে তাদের মধ্যেও রয়েছে অন্তঃকোন্দল। বিএনপির দুই কেন্দ্রীয় নেতা সালাউদ্দিন আহমেদ ও লুৎফুর রহমান কাজলের অনুসারীরা গোপনে সরকার বিরোধী আন্দোলন সংগ্রামের অগ্রভাগে নেতৃত্ব দিলেও সম্প্রতি তাদের কেন্দ্রীয় কর্মসূচি থেকে বিরত রয়েছে।

ঈদগাঁও উপজেলা জামাতের নেতাকর্মীরা জানান, বর্তমান সরকারের অধিনে কোনো নির্বাচনে অংশ নিবে না (যদিওবা তাদের নিবন্ধন বাতিল প্রক্রিয়াধীন)। দলের হাই কমান্ডের নির্দেশে তারা, দলের প্রতি কর্মকান্ড চালিয়ে আসছে।

 রাজপথে সরব উপস্থিতি নেই কেনো এমন প্রশ্নের জবাবে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন নেতাকর্মী জানান, পুলিশের ধরপাকড়, আটক, নিপীড়ন থেকে রেহাই পেতে গোপনে নির্বাচনী মাঠ সাজাচ্ছে। কক্সবাজার সদর, রামু, ঈদগাঁও আসনের সম্ভাব্য সংসদ সদস্য পদপ্রার্থী শহিদুল ইসলাম বাহাদুর ওরফে ভিপি বাহাদুরের সমর্থনে বিভিন্ন স্থানে গণসংযোগ, পথসভা, মিছিল মিটিং ও চালিয়ে যাচ্ছে বলে জানান জামাতের নেতাকর্মীরা। তাদের মধ্যে কোনো গ্রুপিং নেই জানিয়ে আরো বলেন, কেন্দ্রীয় কমিটি যাকে মনোনয়ন দিবে তার পক্ষে কাজ করবে, তবে এ সরকারের অধিনে নির্বাচনে অংশ নিবে না। নির্দলীয় সরকারের অধিনে জাতীয় নির্বাচন অবাধ সুষ্ঠু নিরপেক্ষ করতে চলমান আন্দোলন চালিয়ে যাবে।

তবে জামাতের নেতাকর্মীরা ক্ষোভের সঙ্গে জানান,  উপজেলা জামাতের সভাপতি সেলিম উল্লাহ জিহাদি ও সাধারণ সম্পাদক নুরুল আজিমকে সম্প্রতি কোনো মিছিল মিটিং এ দেখা যাচ্ছে না। ছাত্রশিবিরের নেতাকর্মীরা মাঝেমধ্যে ঝটিকা মিছিল বের করলেও দীর্ঘক্ষণ স্থায়ী হয় না তাদের আন্দোলন সংগ্রাম।এদিকে যুগ যুগ ধরে ঈদগাঁও উপজেলায় জাতীয় পার্টি (এরশাদ)  জাপা, জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল জাসদ, বাসদ,ইসলামি আন্দোলনসহ অহরহ রাজনৈতিক দলের অস্তিত্ব খুঁজে পাওয়া যায়নি।

 আওয়ামী লীগের অন্তঃ কোন্দলের বিষয়ে জানতে জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ফরিদুল ইসলাম চৌধুরীর সঙ্গে মুঠোফোনে যোগাযোগ করা হলে তিনি ব্যস্ত আছে জানিয়ে কথা বলতে চায়নি।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page