Thursday, February 29, 2024
spot_img

ঈদগাঁওয়ের বন্যা কবলিত এলাকায় বিএনপি পরিবারের ত্রাণ বিতরণ: বেড়িবাঁধ মেরামতের দাবি

 

নিজস্ব প্রতিবেদক :

ভারি বৃষ্টিপাতে সৃষ্ট পাহাড়ি ঢলের পানি আবহমান ঈদগাঁও ফুলেশ্বরী নদীর বেড়িবাঁধ ভেঙে এবং উপচে পড়ে প্লাবিত হয়েছে কয়েকটি ইউনিয়নের ১০/১২ টি গ্রাম। সৃষ্ট বন্যায় পানি বন্দি রয়েছে হাজার হাজার মানুষ, দেখা দিয়েছে প্রাকৃতিক বিপর্যয়।সপ্তাহ ধরে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হলেও রবিবার থেকে ভারি বৃষ্টিপাত হওয়ায় উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানি ঈদগাঁও নদীর কয়েকটি স্থানে বেড়িবাঁধ ভেঙে গেছে। এমন পরিস্থিতিতে মানবতার জীবন পার করছে শত শত পরিবারের হাজার হাজার নারী পুরুষ, শিশু, শিক্ষার্থীরা। মানবিক বিপর্যয় দেখে বন্যা দূর্গত এলাকায় ত্রাণ সামগ্রী পৌঁছে দিয়েছে জাতীয়তাবাদী দল বিএনপি।

কেন্দ্রীয় বিএনপির মৎস্য বিষয়ক সম্পাদক সাবেক সংসদ সদস্য লুৎফুর রহমান কাজলের নির্দেশে ঈদগাঁওয়ের বন্যা দূর্গত পরিবারের মাঝে শুকনো খাবার বিতরণ করেন ঈদগাঁও উপজেলা বিএনপি পরিবার।

সোম ও মঙ্গলবার উপজেলা বিএনপির সাধারণ সম্পাদক আলমগীর তাজ জনির নেতৃত্বে জালালাবাদ ইউনিয়নের ২,৩ এবং পোকখালী ইউনিয়নের ১,২,৩,৪, ওয়ার্ডে এ-সব ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়।এ-সময় ঈদগাঁও ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আবদুস সালাম, জালালাবাদ ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি মোঃ জকরিয়া, পোকখালী ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি আক্তার উদ্দিন বাবুল, ইসলামপুর ইউনিয়ন বিএনপির সভাপতি হারুন অর রশিদ, জালালাবাদ ইউনিয়ন বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মামুন সিরাজুল মজিদ,পোকখালী বিএনপির সাধারণ সম্পাদক মোঃ ইসমাইল, উপজেলা যুবদলের সিনিয়র যুগ্ম আহবায়ক কামাল হোসেন, উপজেলা ছাত্রদলের যুগ্ম আহবায়ক সালা উদ্দিন, সাদেক, তৌহিদ, বিএনপি নেতা নুরুল হাকিম,তৌহিদুল ইসলাম শাহীন, মোঃ শফি,শামসুল আলম, মোবারক, যুবদলের সেল্টু, রাশেদ,ইউসুফ, সাইফুদ্দিন, ইউনুস, জাহেদ সহ অসংখ্য নেতাকর্মী উপস্থিত ছিলেন।

ত্রাণ বিতরণ কালে সংক্ষিপ্ত আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়। আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, সরকারের অপরিকল্পিত উন্নয়নের কারণে বেড়িবাঁধ ভেঙে মানুষের জীবন যাত্রা ব্যাহত হচ্ছে। এ সরকার সাধারণ মানুষের জান মাল,রাস্তা ঘাট, বেড়িবাঁধ রক্ষা করতে ব্যর্থ।

বক্তারা আরো বলেন, ভাংগনকৃত বেড়িবাঁধ, সড়ক উপ -সড়ক দ্রুত টেকসই উন্নয়নের মাধ্যমে পুনঃ মেরামত করে সাধারণ মানুষের চলাচল, যাপিত জীবন সহজতর করতে সংশ্লিষ্টদের অনুরোধ জানান।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page