Saturday, May 25, 2024

বৃষ্টিতে ভোট গ্রহণে বিঘ্ন, ভোটার উপস্থিতি কম

নিজস্ব প্রতিবেদক:

আকাশে মেঘের ঘনঘটা, হালকা বৃষ্টি।এরই মাঝে ঘড়ির কাঁটায় ৮টা বাজতেই শুরু হয়ে গেল উপজেলা নির্বাচনের ভোটগ্রহণ। তবে বৃষ্টির কারণে ভোটার উপস্থিতি একেবারেই কম। ভোট শুরু হওয়ার সাথে সাথেই সকাল থেকে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে।

কক্সবাজার সদর, মহেশখালী, কুতুবদিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ভোটগ্রহণ চলছে। বুধবার (৮ মে) সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ চলবে বিকেল ৪টা পর্যন্ত। এদিকে সকাল থেকে কালবৈশাখীর প্রভাবে গুঁড়ি গুঁড়ি বৃষ্টি হচ্ছে। ফলে কেন্দ্রগুলোতে ভোটার উপস্থিতি তুলনামূলক কম।

কক্সবাজার শহরের সৈকত বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়, পৌর প্রিপ্যারাটরি উচ্চ বিদ্যালয় ভোটকেন্দ্রসহ কয়েকটি কেন্দ্র ঘুরে দেখা গেছে, কিছু সংখ্যক ভোটার ভোট দিতে এলেও নেই ভোটারদের লাইন। পুরুষের তুলনায় নারী ভোটারদের কিছুটা বেশি উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেছে। পুলিশ ও আনসার সদস্যরা বসে থেকে সময় কাটাচ্ছেন। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে ভোটার উপস্থিতি বাড়বে বলে দাবি কর্তৃপক্ষের।

শহরের সৈকত বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দায়িত্বে থাকা এক অফিসার বলেন, ‘এ ভোটকেন্দ্রে এখন পর্যন্ত প্রায় ২৩ টির মতো ভোট পড়েছে। সকাল থেকে আকাশ মেঘাচ্ছন্ন সাথে বাতাসের সঙ্গে গুড়ি গুড়ি বৃষ্টি শুরু হয়েছে তাই ভোটার সংখ্যা একেবারেই কম। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ভোটার সংখ্যা বাড়বে বলে ধারণা করা যাচ্ছে।’

রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় সূত্র জানায়, কক্সবাজার সদরে উপজেলা চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করছেন ২ জন। মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ২ জন। পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এছাড়াও অন্যদিকে মহেশখালী উপজেলায় ৫ জন ভাইস চেয়ারম্যান, ৩ জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান । কুতুবদিয়া উপজেলায় ৩ জন ভাইস চেয়ারম্যান এবং ২জন মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থী নির্বাচনের মাঠে আছেন।

এ তিন উপজেলায় মোট ভোটার ৫ লক্ষ ৭৭ হাজার ৪৯৬ জন৷ যার মধ্যে সদর উপজেলায় ২ লক্ষ ২২ হাজার ৮শ ৬৮ জন। মহেশখালী উপজেলায় ২ লক্ষ ৫৭ হাজার ৪৫৮ জন এবং কুতুবদিয়া উপজেলায় ৯৭ হাজার ১৭০ জন ভোটার।

এ তিন উপজেলায় মোট ভোট কেন্দ্র ২০৪ টি। যার মধ্যে সদরে ৮৬ টি, মহেশখালীতে ৮১ টি এবং কুতুবদিয়ায় ৩৭ টি কেন্দ্র। তিন উপজেলাতেই ভোটগ্রহণ হচ্ছে ইভিএমে।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page