Monday, May 27, 2024

ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময়ে যে দোয়া পড়া সুন্নত

টিটিএন ডেস্ক

ঈদুল ফিতর ও ঈদুল আজহা। মুসলিম উম্মাহর শ্রেষ্ঠ ধর্মীয় উৎসব ও ইবাদত। ঈদের দিন ধনী-গরিব, উঁচু-নিচু কোনো ভেদাভেদ থাকে না। সবাই কাঁধে কাঁধ মেলানো, উষ্ণ অভ্যর্থনা ও শুভেচ্ছা বিনিময়, পাড়া-প্রতিবেশী ও আত্মীয়-স্বজনের খোঁজখবর নেয়া, পরস্পর মিলে-মিশে খাবার গ্রহণ- ইত্যাদি মুসলিম সমাজের ঐতিহ্য।

ঈদের দিন আমরা পরস্পরকে শুভেচ্ছা জানাতে ঈদ মোবারক শব্দটি ব্যবহার করে থাকি। ঈদ শব্দের অর্থ আনন্দ, খুশি বা উদযাপন ও উচ্ছ্বাস। আর মোবারক শব্দের অর্থ কল্যাণময় ও বরকতপূর্ণ। সুতরাং ঈদ মোবারকের অর্থ হলো- ঈদ কল্যাণময় হোক। অথবা আনন্দ উদযাপন কল্যাণজনক হোক।
আমাদের দেশে ‘ঈদ মোবারক’ বলে ঈদের শুভেচ্ছা জানানো হয়। এই প্রচলনটা বেশ সুন্দর ও মানানসই। তবে সালামের আগেই ‘ঈদ মোবারক’ বলা উচিত নয়। কারণে এভাবে শুভেচ্ছা বিনিময় করতে গেলে- আগে সালাম জানানোর আমলটুকু হয় না। এছাড়া ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করার সর্বোত্তম পদ্ধতি হলো এ দোয়া পাঠ করা :
تقبل الله منا ومنكمউচ্চারণ: তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকুম।অর্থ: আল্লাহ আমাদের ও আপনাদের পক্ষ থেকে (যাবতীয় ভালো কাজ) কবুল করুন।
জুবাইর ইবনু নুফাইর (রা.) বর্ণিত, তিনি বলেন, ‘রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সাহাবায়ে কেরাম ঈদের দিন পরস্পর সাক্ষাৎ হলে বলতেন ‘তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়ামিনকুম’। (ফাতহুল কাদির, খণ্ড: ০২, পৃষ্ঠা-৫১৭)

অন্য বর্ণনায় এসেছে- ওয়াসিলা (রা.) বলেন, আমি রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লাম-এর সঙ্গে ঈদের দিন সাক্ষাৎ করলাম। আমি বললাম, ‘তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকা’। মহানবী (স.) বললেন, ‘তাকাব্বালাল্লাহু মিন্না ওয়া মিনকা।’ (বায়হাকি: ৩/৪৪৬)

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page