Thursday, April 18, 2024

ব্রাজিল না পারলেও তিন গোলের সঙ্গে জয়টাও পেল আর্জেন্টিনা

টিটিএন স্পোর্টস ডেস্ক :

গতকাল রাতে স্পেনের বিপক্ষে তিন গোল দিলেও জয় পায়নি ব্রাজিল। মাদ্রিদে দুইবার পিছিয়ে পড়েও ৩-৩ সমতায় প্রীতি ম্যাচ শেষ করেছে ব্রাজিল। এদিকে কোপা আমেরিকার প্রস্তুতিতে লস অ্যাঞ্জেলসে একটু আগে কোস্টারিকার মুখোমুখি হয়েছিল আর্জেন্টিনা।

ব্রাজিলের মতোই প্রথমে পিছিয়ে পড়েও পরে তিন গোল দিয়েছে আর্জেন্টিনা। তবে ব্রাজিল যেখানে শেষ মুহূর্তের গোলে মুখরক্ষা করেছে, সেখানে আর্জেন্টিনা পেয়েছে ৩-১ ব্যবধানের জয়। আর্জেন্টিনার হয়ে দ্বিতীয়ার্ধে তিনটি গোল করেছেন আনহেল দি মারিয়া, অ্যালেক্সিস ম্যাক আলিস্টার ও লওতারো মার্তিনেস।

ক্লাবের জার্সিতে গোলের পর গোল করে গেলেও অজানা কারণে আর্জেন্টিনার জার্সিতে মাঠে নামলেই যেন গোলপোস্ট চিনতে ভুলে যেতেন মার্তিনেস। জাতীয় দলের জার্সিতে শেষবার গোল করেছিলেন ২০২২ সালের সেপ্টেম্বরে। এরপর পেরিয়ে গেছে ১৮ মাস। এ সময় আলবিসেলেস্তেদের হয়ে আরও ১৬ ম্যাচে মার্তিনেস গোলহীন। অবশেষে গোল খরা ঘুঁচেছে ইন্তের মিলান স্ট্রাইকারের।

ম্যাচে অবশ্য প্রথমে গোল খেয়ে বসেছিল লিওনেল স্কালোনির শিষ্যরা। চোটের কারণে লিওনেল মেসিকে পায়নি আর্জেন্টিনা। সেটার প্রভাব শুরুতে ভালোভাবেই টের পেয়েছে লাতিন আমেরিকান দলটি। লস অ্যাঞ্জেলসে কোস্টারিকার বিপক্ষে ম্যাচে শুরু থেকেই আক্রমণাত্মক ফুটবল খেলতে থাকে আর্জেন্টিনা। এ ম্যাচে নিয়মিত গোলরক্ষক এমিলিয়ানো মার্তিনেসকে বিশ্রাম দিয়েছিলেন স্কালোনি। আর্জেন্টিনার গোলপোস্টে অভিষেক হয় ওয়াল্টার বেনিতেসের।

কিন্তু শুরুটা ভালো হয়নি ৩১ বছর বয়সী গোলকিপারের। একের পর এক আক্রমণ চালানো আর্জেন্টিনা ম্যাচের ৩৪ মিনিটে গোল খেয়ে বসে। প্রতিআক্রমণে উঠেছিল কোস্টারিকা। নিজেদের অর্ধ থেকে বল পেয়ে একাই বল নিয়ে আর্জেন্টিনার গোল মুখে আগান ম্যানফ্রেড উগালদে। ডি বক্সের সামনে গিয়ে পাস দেন আলভারো জামোরাকে। তিনি গোলপোস্টে শট নিলে বেনিতেসের হাতে লেগে বল যায় ম্যানফ্রেডের সামনে। সেখান থেকে ঠান্ডা মাথায় গোল করেন তিনি।

এক গোলে পিছিয়ে থেকে বিরতিতে যায় মার্তিনেসের দল। বিরতি থেকে ফিরে আবার আক্রমণের ঝড় বইয়ে আর্জেন্টিনা। ম্যাচের ৫২ মিনিটে ডি-বক্সের বাইরে থেকে দারুণ ফ্রি-কিকে সমতা ফেরান দি মারিয়া। ৪ মিনিট পরেই ব্যবধান ২-১ করেন অ্যালিস্টার।

কর্নার থেকে প্রথমে হেড করেছিলেন ওতামেন্দি। সে হেড গিয়ে পড়ে দূরের পোস্টের সামনে থাকা তাগলিয়াফিকোর মাথায়। তাঁর হেড ক্রসবারে লেগে ফেরত আসে। এবার বল যায় আলিস্টারের সামনে। গোলকিপার কেইলর নাভাস তখনো তাগলিয়াফিকোর কাছে, ফলে আলিস্টারের হেড ঠেকানোর উপায় ছিল না।

পরপর দুই গোল পেয়ে আরও গোল পেতে মরিয়া আর্জেন্টিনা আক্রমণের ধারও বাড়িয়ে দেয়। কিন্তু কোস্টারিকার রক্ষণ ভেদ করে আর গোল হচ্ছিল না কোনোভাবেই। ম্যাচের ৭১ মিনিটে গার্নাচোকে তুলে মার্তিনেসকে মাঠে নামান স্কালোনি। ৬ মিনিট পর বদলি মানা ইন্তের স্ট্রাইকারের গোলেই ৩-১ গোলের জয় নিশ্চিত হয় আর্জেন্টিনার।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page