Thursday, May 23, 2024

দুই ধাপে ফেরত গেলো ৩৩০ মিয়ানমার নাগরিক

নিজস্ব প্রতিবেদক

বাংলাদেশে পালিয়ে এসে আশ্রয় নেয়া বিজিপিসহ ৩৩০ জন মিয়ানমার নাগরিককে দুই ধাপে হস্তান্তর করেছে বর্ডার গার্ড বাংলাদেশ (বিজিবি)। প্রতি ধাপে ১৬৫ জন করে দুই ধাপে তাদেরকে মিয়ানমার- বাংলাদেশ জলসীমায় মিয়ানমারের বর্ডার পুলিশ (বিজিপি)’র কাছে হস্তান্তর করা হয়।

হস্তান্তরিতদের মধ্যে ৩০২ জন বিজিপি সদস্য, ৪ জন বিজিপি পরিবারের সদস্য, ২ জন সেনা সদস্য, ১৮ জন ইমিগ্রেশন সদস্য এবং ৪ জন বেসামরিক নাগরিক।

বৃহস্পতিবার (১৫ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে এই হস্তান্তর প্রক্রিয়া দুই ধাপে সম্পন্ন করে বিজিবি। এই সময় তাদের ছবি, বায়োডাটা যাচাই বাছাই করে কর্ণফুলী এক্সপ্রেস জাহাজে তাদেরকে গভীর সাগরে অবস্থান করা মিয়ানমারের জাহাজে হস্তান্তর করা হয়। জাহাজ বড় হওয়ার কারণে ইনানী ঘাটে ভিড়তে না পারায় গভীর সাগরে নোঙর করে মিয়ানমারের জাহাজটি।

বিজিবির জনসংযোগ কর্মকর্তা মো. শরীফুল ইসলাম স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয়, বৃহস্পতিবার সকালে বাংলাদেশ কোস্ট গার্ডের জাহাজে করে মিয়ানমার সীমান্তরক্ষী বাহিনীর পুলিশ কর্নেল ম্যু থুরা নোঙ এর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের একটি বিজিপি প্রতিনিধিদল কক্সবাজারের ইনানীর নৌবাহিনীর জেটিঘাটে আসে এবং বিজিবি’র নিকট থেকে বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণকারী ৩৩০ জন মিয়ানমার নাগরিককে গ্রহণ করে সে দেশে নিয়ে যায়। হস্তান্তরের সময় বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী এবং বাংলাদেশে নিযুক্ত মিয়ানমারের রাষ্ট্রদূত ইউ অং ক্যু ময়ে উপস্থিত ছিলেন।

এসময় বিজিবি মহাপরিচালক মেজর জেনারেল মোহাম্মদ আশরাফুজ্জামান সিদ্দিকী বলেন, গত ১১ ফেব্রুয়ারি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিত সভার সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আশ্রিতদের প্রত্যাবাসনের নির্দেশ দেয়া হয়। এপ্রেক্ষিতে বিজিবি’র রামু সেক্টরের সেক্টর কমান্ডার কর্নেল মেহেদী হোসাইন কবীর এর নেতৃত্বে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি, কক্সবাজার ব্যাটালিয়ন (৩৪ বিজিবি) এর অধিনায়ক, টেকনাফ ব্যাটালিয়ন (২ বিজিবি) এর অধিনায়ক এবং কক্সবাজারের জেলা প্রশাসক ও পুলিশ সুপারের সমন্বয়ে ৭ সদস্য বিশিষ্ট একটি হস্তান্তর কমিটি গঠন করা হয়। উক্ত কমিটি মিয়ানমারের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সাথে দ্রুত যোগাযোগ ও সমন্বয় করে বাংলাদেশে আশ্রয় গ্রহণকারী বিজিপিসহ অন্যান্য সদস্যদেরকে মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনের সকল প্রক্রিয়া সম্পন্ন করে।

৪ থেকে ১০ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত মিয়ানমারের অভ্যন্তরীন সংঘর্ষের কারণে কয়েক ধাপে পালিয়ে তুমব্রু সীমান্ত হয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছিলো ৩৩০ মিয়ানমার নাগরিক।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page