Tuesday, April 9, 2024

সীমান্তরক্ষীদের ফেরত নিতে জাহাজ পাঠাচ্ছে মিয়ানমার

নিজস্ব প্রতিবেদক :

বাংলাদেশে আশ্রয় মিয়ানমারের সীমান্ত রক্ষীদের সেদেশে ফেরত পাঠানোর প্রক্রিয়া শুরু হয়েছে। মিয়ানমার কর্তৃপক্ষ তাদের সীমান্ত রক্ষীদের ফেরত নিতে জাহাজ পাঠাচ্ছে বলে খবর পাওয়া গেছে। সবকিছু ঠিক থাকলে ১০ ফেব্রুয়ারী শনিবার আশ্রয় নেয়া সীমান্ত রক্ষীদের ফেরত পাঠানো হতে পারে বলে জাতীয় দৈনিক কালবেলা সূত্রে জানা গেছে। পত্রিকাটির সূত্রে জানা যায়,পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের পক্ষ থেকে ইতোমধ্যে কয়েকদফা মিয়ানমারের কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করা হলে শনিবার মিয়ানমারের একটি জাহাজ বাংলাদেশের টেকনাফে পৌঁছাবে বলে মিয়ানমারের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে। সে জাহাজে করে আশ্রিত মিয়ানমারের নাগরিকদের ফেরত নেয়ার কথা রয়েছে। জাহাজটিতে ৫০০ জনকে বহন করার ধারণ ক্ষমতা আছে তাই একসাথে পালিয়ে এসে আশ্রয় নেয়া মিয়ানমারের সকল সেনা, পুলিশ, বিজিপি,ইমিগ্রেশন বিভাগের সদস্যদের একসাথে ফেরত নেয়া হতে পারে। মিয়ানমারের অভ্যন্তরে চলমান সংঘাতে এ পর্যন্ত আশ্রয় নেয়া সেদেশের সরকারি বাহিনীর ৩৩০ জন সদস্য বাংলাদেশে আশ্রয় নিয়েছে। তাদের মধ্যে আহত ৯ জন কক্সবাজার ও চট্টগ্রাম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। চিকিৎসাধীন সীমান্তরক্ষীদেরও ফেরত নেয়া হবে কি না জানা যায়নি।

এদিকে বাংলাদেশ মিয়ানমার সীমান্তের ওপারে গত কয়েকদিন ধরে চলা সংঘর্ষ এখন কিছুটা শান্ত। তবে শুক্রবার সকালে ওোর থেকে এসে পড়েছে একটি রকেট লঞ্চার। বান্দরবানের নাইক্ষ্যংছড়ির তুমব্রুর পশ্চিমকুলে সড়কেই পড়েছিলো রকেট লঞ্চারটি। নিরাপত্তাজনিত কারণে বিজিবি সরিয়েছে আশপাশের বাসিন্দাদের।

শুক্রবার দুপুরের দিকে নয়াপাড়া সীমান্তে আরেকটি রকেট লঞ্চারটি নিষ্ক্রিয় করে সেনাবাহিনীর বোমা নিষ্ক্রিয় দল। এসময় ওপারে কিছুক্ষণ গোলাগুলির শব্দ পায় স্থানীয়রা।

এদিকে উখিয়ার সীমান্ত এলাকায় দুইটি অজ্ঞাত মরদেহ পড়ে থাকতে দেখেছে স্থানীয়রা। উখিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জানান, বিজিবির পক্ষ থেকে তাদের বলা হয়েছে, পরিস্থিতি স্বাভাবিক হলে মরদেহ গুলো উদ্ধার করা হবে।

শুক্রবার সীমান্তে নতুন করে কোনো বিজিপি সদস্য আশ্রয়ে আসেনি বাংলাদেশের।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page