Sunday, February 25, 2024

প্রতিবেশী কোন দেশকে কত সহায়তা দেয় ভারত, বাংলাদেশ পায় কত??

টিটিএন ডেস্ক

ভারতের বিদেশি সহায়তার বেশির ভাগই এবার পাচ্ছে ভুটান। ভারতের ২০২৪-২৫ অর্থবছরের বাজেট পাস হয়েছে। সেই বাজেটে দেশটি বৈদেশিক সহায়তা তহবিলে ৫ হাজার ৬০০ কোটি রুপিরও বেশি পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ করেছে। ভারতীয় সংবাদমাধ্যমগুলো জানাচ্ছে, দেশটির এই বৈদেশিক সহায়তা তহবিলের সিংহভাগই পাচ্ছে প্রতিবেশী ভুটান। ভারতের নয়া বাজেটে বিভিন্ন ধরনের সহায়তা হিসেবে দেওয়ার জন্যও সবচেয়ে কম বরাদ্দ করা হয়েছে শ্রীলঙ্কা এবং বাংলাদেশের জন্য ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম ইকোনমিক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ভারতের অর্থমন্ত্রী নির্মলা সীতারমণ গত বৃহস্পতিবার দেশটির কেন্দ্রীয় সরকারের বাজেট পেশ করেন। বাজেটে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের জন্য বৈদেশিক সহায়তা তহবিলে বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ৫ হাজার ৬৬৭ দশমিক ৫৬ কোটি রুপি।
এই অর্থের সিংহভাগই বরাদ্দ করা হয়েছে ভুটানের জন্য। ভারত সরকার দেশটিতে সহায়তা দেওয়ার জন্য বরাদ্দ রেখেছে ২ হাজার ৬৮ দশমিক ৫৬ কোটি রুপি। অর্থাৎ, প্রায় অর্ধেকই দেওয়া হবে দেশটিকে। ভুটানকে বিপুল পরিমাণ সহায়তা দিলেও মালদ্বীপের জন্য এবার যথেষ্ট কম পরিমাণ অর্থ বরাদ্দ করেছে ভারত। দেশটির জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৬০০ কোটি রুপি। আগের অর্থবছরে, অর্থাৎ ২০২৩-২৪ সালে এর পরিমাণ ছিল ৭৭০ দশমিক ৯০ কোটি রুপি।
ভারতের নিকট প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে ভুটানের পর সবচেয়ে বেশি বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে নেপালের জন্য। দেশটির জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে ৭০০ কোটি রুপি। ভুটান, নেপাল ও মালদ্বীপের পর সবচেয়ে বেশি সহায়তা বরাদ্দ করা হয়েছে মিয়ানমারের জন্য, ২৫০ কোটি রুপি। এর পরই আছে আফগানিস্তানের অবস্থান। নয়াদিল্লি কাবুলকে দেওয়ার জন্য বরাদ্দ করেছে ২০০ কোটি রুপি।

নিকট প্রতিবেশী দেশগুলোর মধ্যে সবচেয়ে কম সহায়তা বরাদ্দ পাওয়া দুই দেশ হলো বাংলাদেশ ও শ্রীলঙ্কা। বাংলাদেশের জন্য বরাদ্দ করা অর্থের পরিমাণ ১২০ কোটি রুপি, যা আগের বছর ছিল ১৩০ কোটি রুপি। তার আগের বছর, অর্থাৎ ২০২২-২৩ অর্থবছরেও বরাদ্দ করা হয়েছিল ১৩৩ কোটি রুপির কিছু বেশি। ভারতের চলতি অর্থবছরে শ্রীলঙ্কার জন্য বরাদ্দ করা হয়েছে মাত্র ৭৫ কোটি রুপি। আগের অর্থবছরে এর পরিমাণ ছিল ৬০ কোটি রুপি।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page