Monday, February 26, 2024

‘আলিবাবা’র দ্বিতীয় মঞ্চায়ন: মুগ্ধ দর্শক

সায়ন্তন ভট্টাচার্য :

চিচিং ফাঁক! ডাকাত সর্দারের জাদুমন্ত্রবলে খুলে যায় গুহার দরজা,যেখানে স্তুপে স্তুপে সাজানো আছে লুট করা ধনসম্পদ। ভাগ্যক্রমে এই গুপ্তভান্ডারের সন্ধান পেয়ে রাতারাতি বড়লোক হয়ে যায় গরীব কাঠুরে আলিবাবা। এরপর নানা ঘাত প্রতিঘাত শেষে বুদ্ধিমতী গৃহকর্মী মর্জিনার চালাকিতে প্রাণে বাঁচে আলিবাবা।

সকলেরই অতি পরিচিত এই আরব্য রূপকথা যেন প্রাণ পেল নাট্যশিল্পীদের নিপুন অভিনয়দক্ষতায়। শনিবার নগরীর শহিদ সুভাষ হলে মঞ্চায়িত হয়ে গেল ক্ষিরোদ প্রসাদ বিদ্যাবিনোদ রচিত এবং স্বপন ভট্টাচার্য নির্দেশিত নাটক আলিবাবা।

এমন একটি ইতিহাস নির্ভর নাটক নির্মানে যে চ্যালেঞ্জের মুখোমুখি হতে হয়েছে তা জানিয়ে নির্দেশক ও নাট্য নির্মাতা স্বপন ভট্টাচার্য বলেন, তিনি ও তার দল আনন্দিত এই কাজ করতে পেরে,দর্শকদের সাড়া পেলে কক্সবাজারে এমন কাজ আরো অনেক করা সম্ভব।

এমন একটি নাটকে কাজ করতে পেরে এই নাটকের কলাকুশলীরাও উচ্ছ্বসিত। নাটকের অভিনেত্রী ফাল্গুনী হৈমু বলেন, কক্সবাজারে যে হাতেগোনা নাটকের কাজ হয় তার মধ্যে এই নাটকটি একটি মাইলফলক হয়ে থাকবে।

শেষ দিনের মঞ্চায়নে উপস্থিত ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক তাপ্তি চাকমা ও বিশিষ্ট শিক্ষাবিদ অধ্যাপক সোমেশ্বর চক্রবর্তী। নাটক দেখে অনুভূতি প্রকাশ পর্বে তারা এই নির্মানের ভূয়সী প্রশংসা করেন এবং অভিনয়শিল্পীদের সাথে শুভেচ্ছা বিনিময় করেন।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page