Sunday, February 25, 2024

অবৈধ বালিভর্তি আটক ডাম্পার, টাকা নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ বিট কর্মকর্তার বিরুদ্ধে

মহেশখালী প্রতিনিধি-

মহেশখালীতে অবৈধভাবে বালি উত্তোলনের সময় আটক করা ডাম্পার, আর্থিক সুবিধা নিয়ে ছেড়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে মহেশখালী শাপলাপুর বিটের বিট কর্মকর্তা, নুরে আলম মিয়া নাহিদের বিরুদ্ধে।

জানাযায়, সোমবার (১৫ জানুয়ারি) শাপলাপুরের দক্ষিণ ষাইটমারা থেকে বালিভর্তি চট্ট-মেট্রো-চ-২৬২৮ নম্বর এর একটি ডাম্পার গাড়ি আটক করে বিট কর্মকর্তা নাহিদের নেতৃত্বে শাপলাপুর বিট। এসময় ওই ডাম্পারের ড্রাইভার মো. হারুন এবং হেল্পার আব্দুর রহমানসহ দুইজনকে আটক হয়।

এই বিষয়ে ঘটনার দিন শাপলাপুর বিট কর্মকর্তা নূরে আলম মিয়া নাহিদ, বালি উত্তোলনের সাথে জড়িতদের বিরুদ্ধে এবং আটক গাড়ির বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়ার কথা বললেও বুধবার (১৭ জানুয়ারি) ওই গাড়ি আর্থিক লেনদেনের বিনিময়ে ছেড়ে দেয় বলা জানা যায়৷ এই বিষয়ে ওই গাড়ির মালিক জানান ১ লক্ষ ১০ হাজার টাকার বিনিময়ে শফিক নামের একজনের মধ্যস্ততায় আটক ডাম্পারটি ছাড়িয়ে আনেন তিনি। এমন একটি অডিও টিটিএনের হাতে এসেছে। যেখানে গাড়ির মালিক কে বলতে শুনা যায়, বালিসহ আটক হওয়া গাড়ি শফিকের মাধ্যমে এক লক্ষ ১০ হাজার টাকা দিয়ে তিনি ছাড়িয়ে এনেছেন। এসময় তিনি মামলা ছাড়া গাড়িটি ছাড়াতে পেরেছেন বলে সন্তুষ্টি প্রকাশ করেন।

আটক বালিভর্তি ডাম্পার ছাড়িয়ে আনা শফিক একজন চিহ্নিত বালিখেকো। স্থানীয়রা জানায়, শাপলাপুর বিট কর্মকর্তা নুরে আলম মিয়া নাহিদ চিহ্নিত বালি খেকোদের নিয়ে বিশাল একটি সিন্ডিকেট গড়ে তুলেছেন। যারা তাকে মাসোহারা দিয়ে রাতে-দিনে ষাইটমারা, চালিয়াতলী, জেএমঘাটসহ শাপলাপুর বিটের আওতাধীন বিভিন্ন এলাকা থেকে বালি উত্তোলন করছে।

এই বিষয়ে জানতে শাপলাপুর বিট কর্মকর্তা নুরে আলম মিয়া নাহিদের মুঠোফোনে একাধিক বার কল দিলেও রিসিভ না করায় তাঁর বক্তব্য পাওয়া যায়নি।

জানতে চাইলে মহেশখালী রেঞ্জ কর্মকর্তা এস.এম এনামুল হক জানান, এই বিষয়ে তিনি কিছু জানেন না। গত দুইদিন তিনি চট্টগ্রামে বিভাগীয় মিটিং এ ছিলেন। তবে শাপলাপুর বিট কর্মকর্তা এমন কিছু করলে তদন্তের মাধ্যমে ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান এই কর্মকর্তা। সাথে মহেশখালীতে যারা পরিবেশ ধ্বংস করছে অবৈধভাবে বালি উত্তোলন করছে তাদের বিরুদ্ধেও আইনানুগ ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান তিনি।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page