Thursday, February 29, 2024
spot_img

ভোট পড়েছে ৪১.৮ শতাংশ : সিইসি

টিটিএন ডেস্ক:

দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে সারা দেশে মোট ৪১ দশমিক ৮ শতাংশ ভোট পড়েছে বলে জানিয়েছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।
সোমবার (৮ জানুয়ারি) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন কমিশন কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এ কথা বলেন তিনি।

সিইসি বলেন, কেউ যদি মনে করেন এ তথ্যে ভুল হয়েছে; তিনি চ্যালেঞ্জ করতে পারেন। ভোটের এ হার নিয়ে সমালোচনাকারীদের তথ্য প্রমাণ নিয়ে আসার চ্যালেঞ্জ দেয়া হলো।

বাংলাদেশের নির্বাচন নিয়ে জাপানি পর্যবেক্ষক দল সুনাম করেছে বলেও জানান হাবিবুল আউয়াল।

এ নিয়ে কেউ কেউ প্রশ্ন তুললেও সাংবাদিকদের বিষয়টির ব্যাখ্যা দেন সিইসি। তিনি বলেন, তখন ছিল দুপুর দুইটা পর্যন্ত দেয়া তথ্য। তবে ২৯৮টি কেন্দ্রের চূড়ান্ত ফল বিশ্লেষণ করে মোট ভোটের হার ৪১ দশমিক ৮ শতাংশ পাওয়া গেছে।

এর আগে গতকাল রোববার ভোটগ্রহণ শেষে সিইসি সাংবাদিকেদের বলেন, সারা দেশে ৪০ শতাংশ ভোট পড়েছে। এখনও অনেক হিসাবনিকাশ আছে। সেটা শেষে চূড়ান্ত ফলাফল ঘোষণা করা হবে।

এখনও মূল ফলাফল আমরা পাইনি। হয়তো ৫ থেকে ৬ ঘণ্টা পর, সব ভোট গণনা শেষ হলে আমরা চূড়ান্ত হার জানাতে পারব’, বলেন তিনি।

সিইসি বলেন, ২৯৯টি আসনে সাংবাদিকরা তথ্য সংগ্রহ করেছেন। আমরাও পর্যবেক্ষণ করেছি। আমরা বেশ কয়েকটি কেন্দ্র পরিদর্শনও করেছি। গুরুতর সহিংসতা ঘটেনি। নির্বাচন শেষ হওয়ার আগে একজন প্রার্থীর প্রার্থিতা বাতিল করা হয়েছে। কয়েকটি ভোটকেন্দ্রে অগ্নিসংযোগের খবর পাওয়া গেছে।

‘সবচেয়ে মর্মান্তিক ঘটনা ঘটেছে, হৃদযন্ত্র বন্ধ হয়ে আমাদের দুইজন ভোটগ্রহণ কর্মকর্তা কাজ করা অবস্থায় মৃত্যুবরণ করেছেন’, যোগ করেন তিনি।

সিইসি আরও বলেন, ‘নির্বাচন শেষে স্বস্তির বিষয় হলো- এ নির্বাচনে সহিংসতায় কোনো প্রাণহানির ঘটনা ঘটেনি। কিছু কেন্দ্রে ভোট কারচুপি এবং সিল মারারা চেষ্টা করা হয়েছিল; সেটা প্রতিরোধ করা হয়েছে। অনেক প্রার্থীর ভোটের অনিয়মের কারণে কিছু কেন্দ্রে ভোটগ্রহণ স্থগিত করা হয়েছে।’

গতকাল ৭ জানুয়ারি অনুষ্ঠিত নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা নিশ্চিত করেছে আওয়ামী লীগ। ২৯৯টি আসনের মধ্যে আওয়ামী লীগ পেয়েছে ২২৪টি আসন। অন্যদিকে স্বতন্ত্র থেকে জয়ী হয়েছেন ৬২ জন, জাতীয় পার্টি থেকে ১১ এবং অন্য দল থেকে একজন প্রার্থী জয় পেয়েছেন। অন্যদিকে একটি আসনের ফলাফল স্থগিত রয়েছে।

এ ছাড়া নওগাঁ-২ আসনে এক প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে এবার ভোট হয় ২৯৯ আসনে। তবে অনিয়ম ও সংঘর্ষের কারণে রোববার (৭ জানুয়ারি) বিকেলে বন্ধ হয় ময়মনসিংহ-৩ (গৌরীপুর) আসনের ভোট। তাই আসনটির ফলাফল স্থগিত রয়েছে।

আরও খবর

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

জনপ্রিয় সংবাদ

You cannot copy content of this page